বাংলা সুনির্বাচিত কৌতুক Bangla Selected Jokes

হাসলে নাকি আয়ু বাড়ে- তাই হাসুন, মন খুলে হাসুন, কারণ হাসলে হার্ট / হৃদয় / মন ভালো থাকে => শরীরও ভালো থাকে । আর মন ভালো- তো সবই ভালো।

*
1) পরীক্ষায় একদিন
পরীক্ষার আগে ঘন্টু শুধু একটাই রচনা মুখস্থ করছিল, MY FRIEND আর পরীক্ষায় এসেছে MY FATHER, কিন্তু ঘন্টু বলে কথা। তাই সে চিন্তা না করে নিজেকে চালাক ভেবে Friend-এর জায়গায় Father লিখে দিয়েছে। আর যে শিক্ষক ঘন্টু র Answer Sheet দেখেছেন, তিনি আজ পর্যন্ত বেহুঁশ আছেন। ঘন্টু লিখেছে,

I AM VERY FATHERLY PERSON. I HAVE LOTS OF FATHERS. SOME OF MY FATHERS ARE MALE AND SOME ARE FEMALE. MY MOTHER IS VERY CLOSE TO MANY OF MY FATHERS. MY UNCLE IS ALSO MY FATHER. MY TRUE FATHER IS MY NEIGHBOR. AND I LOVE ALL MY FATHERS BECAUSE WITHOUT FATHERS LIFE IS IMPOSSIBLE.


1) বরযাত্রা
মন্টু: দ্যাখ দেখি কাণ্ড! কাল আমার বিয়ে। এদিকে মেয়েবাড়ি থেকে বলেছে বরযাত্রায় খুব বেশি লোক না নিতে। খুবই টেনশনে আছি।
শফিক: কেন? টেনশনের কী আছে?
মন্টু: বাবা আমাকে নিয়ে যাবেন কি না কে জানে!


2) বোকা তো তুমি হয়েছ
ভোম্বলকে দাওয়াত করল তার এক বন্ধু। বন্ধুর বাসা আটতলায়। বহু কষ্ট করে সিঁড়ি দিয়ে আটতলায় উঠে সে দেখল, বন্ধুর বাসার দরজায় একটা কাগজ ঝোলানো। তাতে লেখা আছে, ‘ভোম্বল, তুমি বোকা হয়েছ! আমরা কেউ বাসায় নেই। ফিরে যাও।’
ভোম্বল নিচে লিখল, ‘বুদ্ধু, বোকা তো তুমি হয়েছ। আমি তোমার বাসায় আসিইনি!’


3) উল্টো হয়ে দৌড়াচ্ছি
আমার চারদিকে শুধু হতাশা। হতাশা নিয়ে এক বিকেলে পার্কে হাঁটছি। দেখি এক পরিচিত উল্টো হয়ে দৌড়াচ্ছেন। তাঁকে থামিয়ে জানতে চাইলাম ‘আঙ্কেল, ঘটনা কী?’
তিনি উত্তর দিলেন, ‘ডাক্তার ওজন কমানোর জন্য দৌড়ানোর পরামর্শ দিয়েছিলেন। তো দৌড়াতে দৌড়াতে একদিন মাপতে গিয়ে দেখি ওজন বেশি কমে গেছে। তাই এখন আবার বাড়ানোর জন্য উল্টো হয়ে দৌড়াচ্ছি।’


4) আজ তো শুক্রবার!
একবার এক বোকা লোক একটা ছাগল নিয়ে যাচ্ছিল। আরেক বোকা বলল, ‘কিরে, ছাগলটাকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছিস?’
‘স্কুলে ভর্তি করাতে নিয়ে যাই।’
‘আমাকে কি বোকা পেয়েছিস? ছাগলকে স্কুলে ভর্তি করাবি কীভাবে? আজ তো শুক্রবার!’


5) বোকাটা একই ভুল এতবার করবে!
ঝন্টু আর মন্টু, দুই বন্ধু বসে টিভিতে সিনেমা দেখছে। সিনেমার একপর্যায়ে দেখা গেল, নায়িকাকে হারিয়ে নায়ক আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নায়ক একটা বাড়ির ছাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে—এই লাফ দিল বলে! এমন সময় বিজ্ঞাপন বিরতি শুরু হয়ে গেল। ঝন্টু: আমার মনে হয়, নায়ক শেষ পর্যন্ত লাফ দেবে না।
মন্টু: আমার মনে হয় দেবে।
ঝন্টু: বাজি হয়ে যাক! লাফ দিলে আমি তোকে ১০০ টাকা দেব, আর লাফ না দিলে তুই আমাকে ১০০ টাকা দিবি। রাজি?
মন্টু: রাজি।
বিরতির পর দেখা গেল, নায়ক লাফিয়ে পড়ল এবং মারা গেল। মন্টু জিতে নিল ১০০ টাকা।
মন্টু: হাঃ হাঃ, আমি আসলে তোকে বোকা বানিয়েছি। এই ছবি আমি আগেও একবার দেখেছি।
ঝন্টু: তুই তো মোটে একবার, আমি এই ছবি আগে চারবার দেখেছি। কিন্তু ভাবিইনি বোকাটা একই ভুল এতবার করবে!


6) দুই ভাই মিলে ঢিল ছুড়লে
হাবলু আর বাবলু, দুই ভাই একটা আমগাছে ঢিল ছুড়ছিল।
হাবলু: ভাইয়া, এতক্ষণ ধরে ঢিল ছুড়ছি, তবু আমটা পড়ছে না। আমার মনে হয়, আমটা এখনো কাঁচা।
বাবলু: হুম, বৃথা কষ্ট করে কী লাভ? তুই এক কাজ কর তো, গাছ বেয়ে ওপরে উঠে যা।
হাবলু অনেক কষ্ট করে হাচড়ে-পাচড়ে গাছের ওপর চড়ে বসল। হাত বাড়িয়ে আমটা টিপেটুপে পরীক্ষা করে চিৎকার করে বাবলুকে জানাল, ‘ভাইয়া, আমটা পাকা!’
বাবলু: গুড! জলদি নিচে নেমে আয়। দুই ভাই মিলে ঢিল ছুড়লে আমটা পাড়তে খুব বেশি দেরি হবে না!



* * * এসংক্রান্ত আরও মজার কৌতুক =>> * * *


সাইট-টি আপনার ভাল নাও লাগতে পারে, তবুও লাইক দিয়ে উৎসাহিত করুনঃ

শেয়ার করে প্রচারে অবদান রাখতে পারেন

Say something

Please enter name.
Please enter valid email adress.
Please enter your comment.