শ্রীমৎ আচার্য বিবেকানন্দ গোস্বামী

এম.এ.(ট্রিপল), সপ্ততীর্থ, বি.সি.এস (শিক্ষা) প্রাক্তন সহযোগী অধ্যাপক (দর্শন) বরগুনা সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ । প্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশ সেবাশ্রম। -এর স্বহস্তে লিখিত গ্রন্থ
মৃত্যু হতে অমৃতলোকে
Krishna vs Arjun @ Gita



Bhogoban Krishner Picture
  • For Ad Contact
    0183 45 45 989









  • Gurudeb Photo Gurudeb Photo
  •   পারলৌকিক এর শেষ অংশ  

        সমান স্নেহ বিতরণ করে থাকেন। তাঁর নিকট আত্মপর নাই। তাঁর দৃষ্টিতে বৈষম্য নাই, পক্ষপাত নাই তবে জগতে নিয়ম বৈষম্যের কারণ কি? কারণ মানুষের স্বীয় অদৃষ্ট অনুসারে সুখ-দুখ ভোগ করে থাকে। কিন্তু অদৃষ্ট ত দেখা যায় না, এই অদৃষ্টপূর্ণ অদৃষ্ট কি? অদৃষ্ট আর কিছুই নয়- “নিজ নিজ কর্মফল”।
    (৩) 

        মানুষের ভাল ও মন্দ যে কর্ম্ম, সেই কর্মানুরাগ শুভদৃষ্টি বা দুরাদৃষ্টরূপে ভালমন্দ ফল প্রদান করে থাকে। কর্ম্ম দ্বিবিধ – পাপ ও পুণ্য। এই কর্ম্মক্ষেত্রে সংসারে মানুষ সম্পূর্ণরূপে কর্মের অধীন। গত জন্মে মানুষ যেমন কর্ম্ম করেছে বর্তমান জন্মে সেই কর্মই অদৃষ্টরূপে ফল প্রদান করছে। আবার বর্তমান দেহে যেরূপ কর্ম করবে পর জন্মে তদনুরূপ ফলভোগ করবে। অবশ্য যারা হিন্দুধর্ম ও শাস্ত্রে অবিশ্বাসী এবং পরকাল পুনর্জন্ম স্বীকার করে না তাদের এ ভাল লাগবে না, তারা এ অংশ বাদ দিয়ে শেষাংশে পাঠ করবেন ও পরীক্ষায় বুঝবে।

      গুরুবাক্য ও যৌগিক পন্থা  

        যারা হিন্দু এবং হিন্দু ধর্ম্ম ও প্রাচীন মুনিঋষিগণের লিখিত শাস্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধা বিশ্বাস করেন তাদের জন্য বলতেছি যে, মানবের কর্ম্মই অদৃষ্টরূপে প্রতিভাত হয়ে ফল প্রদান করে থাকে।
    শুভকর্ম করলে শুভাদৃষ্ট হয় অর্থাৎ ফল প্রদান করে আর মন্দকর্ম ও অধর্ম করলে দুরাদৃষ্টরূপে দুঃখ দুর্দ্দশা ভোগ করতে হয়। পূর্বে বলেছি মৃত্যু যেমন অবশ্যম্ভাবী তেমনি কর্মফল ভোগও অবশ্যম্ভাবী। অনন্ত জ্ঞানভার মহামতি ভীষ্ম বলেছেন – “মা বুক্ত ক্ষিয়তে কর্ম্ম কল্পকোটি শতৈরপি, অবশ্যমেব ভোক্তব্যঃ কৃতকর্ম্ম শুভাশুভং”। (মহাভারত) ভাল ও মন্দ যে কর্ম্ম করবে, তাঁর ফল ভোগ অবশ্য করতে হবে।

       অবশ্য মন্দ ফল ভোগ করতে কেহ চায় না কিন্তু কর্ম তোমার কর্ম তো তোমাকে ছাড়বে না। তুমি স্বর্গেই থাক আর মর্ত্তেই থাক যেখানে যাবে তোমার কৃতকর্ম তোমার নিকটে যেয়ে ফলভোগ করাবে। তুমি যদি ভাল কর্ম করে থাক তবে অবশ্যই ভাল ফল ভোগ করবে; আর মন্দ কর্ম, পাপ ও অকর্মজনক কার্য্য করে থাক তদনুরূপ মন্দ ফল অবশ্যই ভোগ করবে সন্দেহ নাই। পুরান তন্ত্র প্রভৃতি শাস্ত্রে কর্মফল ভোগের কথা আছে। যারা শিক্ষার দোষে, সংসর্গের গুণে, বয়সের চাপল্যে পরকাল ও কর্মগুণে জন্ম, কর্ম, অদৃষ্ট স্বীকার করে না তাদেরও পরিণামে একদিন স্বীকার করতে হবে এর প্রত্যক্ষ প্রমানও অনেক দেখেছি। শাস্ত্রে ব্যক্ত আছে যে, “কর্মের দরূনই জীবের জন্ম হয়, কর্মের দরূনই জীব মৃত্যু পথে নিপতিত হয়”।

    পূর্ববর্তী পৃষ্ঠা - পরবর্তী পৃষ্ঠা -


    জয় রাধে শ্যাম

  • সুনির্বাচিত শ্লোকঃ-

    সাইট-টি আপনার ভাল নাও লাগতে পারে, তবুও লাইক দিয়ে উৎসাহিত করুনঃ

    শেয়ার করে প্রচারে অবদান রাখতে পারেন

    Say something

    Please enter name.
    Please enter valid email adress.
    Please enter your comment.