বাংলা সুনির্বাচিত কৌতুক Bangla Selected Jokes

হাসলে নাকি আয়ু বাড়ে- তাই হাসুন, মন খুলে হাসুন, কারণ হাসলে হার্ট / হৃদয় / মন ভালো থাকে => আর মন ভালো- তো সবই ভালো।

অধিকাংশ জোকস অনলাইন থেকে সংগৃহীত- শুধুমাত্র আপনাদের আনন্দ বিধানের জন্যই এই প্রচেষ্টা, কাউকে ছোট বা হেয় করার উদ্দেশ্যে নয় ; তাই এ ব্যাপারে কারো কোন আপত্তি থাকলে এডমিনকে অবশ্যই জানাতে ভুলবেন না।

* * * Anupamasite-এ আপনাকে স্বাগতম। আপনার পছন্দমত যে কোন ধরনের লেখা বা কৌতুক পোস্ট করতে পারেন।   মানসম্মত লেখা নামসহ সাইটে স্থায়ীভাবে পাবলিশ করা হয় । ধন্যবাদ * * *

*
34) মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছেন-

এক ভদ্রলোক তার বাচ্চাটিকে নিয়ে পার্টিতে গেছেন। আড্ডায় আড্ডায় তিনি অনেকক্ষণ ধরেই মদ্যপান করছেন। হঠাৎ তার বাচ্চার কথা মনে হতেই পাশে তাকিয়ে দেখলেন তার বাচ্চাও খানিকটা মদ্যপান করে ফেলেছে। তিনি ঐ মদ্যপ অবস্থায় নিজেই গাড়ি চালিয়ে পার্টি থেকে বাসায় ফিরছেন আর একটু পর পর বাচ্চাকে বকছেন। হঠাৎ একজন কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ তার গাড়ি থামিয়ে প্রশ্ন করছেন.....
ট্রাফিক পুলিশঃ আপনার গাড়ি চালানো দেখে আমার সন্দেহ হচ্ছে, আপনি নিশ্চয় মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছেন।
লোকটিঃ না, আমি মাতাল নই।
ট্রাফিক পুলিশঃ আচ্ছা ঠিক আছে, আপনি হা করুন, আমার কাছে ডিটেক্টর মেশিন আছে আমি চেক করছি আপনি মাতাল কিনা। লোকটি হা করলো এবং মেশিনে “মাতাল” সিগনাল দিল। ট্রাফিক পুলিশঃ মেশিন বলছে, আপনি মাতাল। লোকটিঃ আপনার মেশিন নষ্ট।
ট্রাফিক পুলিশঃ অসম্ভব !!
লোকটিঃ ঠিক আছে, আপনি আমার এই ছোট বাচ্চার মুখে মেশিনটি ধরুন, দেখি কি সিগনাল দেয়? এতটুকু বাচ্চাতো আর মদ পান করে না !!
ট্রাফিক পুলিশঃ ঠিক আছে, বাবু মুখ হা করো তো। বাচ্চাটি মুখ হা করলো, এবং মেশিনে যথারীতি “মাতাল” সিগনালই দিল। সঙ্গে সঙ্গে ট্রাফিক পুলিশটি লজ্জিত হয়ে বলল, আপনার সময় নষ্ট করার জন্য স্যরি। অনেক দিন আগের মেশিন তো তাই মাঝে মধ্যেই ডিস্টার্ব দেয়..!!


35) মানসিক হাসপাতালের এক রোগী

মানসিক হাসপাতালের এক রোগী একমনে কী যেন লিখছেন। চুপি চুপি পেছনে এসে দাঁড়ালেন ডাক্তার। বললেন, কী হে, চিঠি লিখছেন নাকি?
রোগী: হু।
ডাক্তার: কাকে লিখছেন?
রোগী: নিজেকে।
ডাক্তার: বাহ্! ভালো তো। তা কী লিখলেন?
রোগী: আপনি কি পাগল নাকি মশাই? সবে তো চিঠিটা লিখছি। চিঠি পাঠাব, দুদিনবাদে চিঠিটা পাব, খুলে পড়ব। তারপর তো বলতে পারব কী লিখেছি!


36) বেণী আজ একটা কেনো?

এক মাতাল একদিন অনেক মদ খেয়ে মাতাল হয়ে বাড়িতে ঢুকল| কিন্তু সে ঘরে না ঢুকে ভুল করে গোয়াল ঘরে ঢুকে পড়ল | তারপর গরুর লেজ ধরে বলল
কিগো ময়নার মা , প্রতিদিন দুটো বেণী কর , আজ একটা কেনো?


37) লোডশেডিং চলতাছে

এক পাগলা গারদে এক পাগল ছাদের সাথে দড়ি লাগিয়ে ঝুলছিল। তা দেখে ডাক্তার জিজ্ঞেস করলেন, ওই পাগল, তুই ঝুলিস কেন?
পাগল : আমি তো বাল্ব!
ডাক্তার : তাহলে তুই জ্বলিস না কেন?
পাগল : (মুচকি হেসে) আরে পাগলের পাগল, তুই কোন্ দেশে আছস? ভুইলা গেছস এইটা বাংলাদেশ! এখন লোডশেডিং চলতাছে , তাই জ্বলতে পারতাছি নারে ভাই!!


38) নিজের বাড়ি থেকেই ছাগল চুরি

এক মাতাল বন্ধুদের সাথে পিকনিক করার জন্য নিজের বাড়ি থেকেই ছাগল চুরি করে নিয়ে গেল। রাতভর খুব আনন্দ করলো । খুব মজা করে খাওয়া দাওয়া করলো সবাই। সকালে বাড়িতে ফিরে দেখলো ছাগল বাড়িতেই আছে! স্ত্রীকে জিজ্ঞাসা করল, `ওই, ছাগল আইলো কই থিকা?
স্ত্রী : আরে রাখো তোমার ছাগল। তার আগে কও, কাল রাইতে তুমি চোরের মত আমার কুত্তাডারে লইয়া কই গেছিলা?


39) তাবিজ

একদিন আবুল প্রচুর মদ খেয়ে এসে বউকে চা দিতে বলল, বউ চা দিতেই বউকে ধরে পেটাতে লাগল , প্রতিবেশীরা মারের আওয়াজ শুনে ছুটে এসে জিজ্ঞেস করল কি হয়েছে মারছেন কেন ??
আবুল : এই হারামজাদী আমার চায়ে তাবিজ মিশিয়েছে আমাকে বস করবে বলে
বউ : ( কাঁদতে কাঁদতে) ওটা টি ব্যাগ ছিল !!


40) বীরত্বের পরিচয়

প্রেমিকা : যতদিন না তুমি একটা বীরের মতো কাজ করবে ততদিন আমি তোমাকে বিয়ে করবো না।
প্রেমিক : এই বাজারে তোমাকে বিয়ে করতে চাইছি, এটাই কি যথেষ্ট বীরত্বের পরিচয় নয়!

* * * এসংক্রান্ত আরও মজার কৌতুক =>> * * *


* * * Anupamasite-এ আপনাকে স্বাগতম। আপনার পছন্দমত যে কোন ধরনের লেখা পোস্ট করতে এখানে ক্লিক করুন।   আপনাদের পোস্ট করা লেখাগুলো এই লিংকে আছে, দেখতে এখানে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ * * *

জ্ঞানই শক্তি ! তাই- আগে নিজে জানুন , শেয়ার করে প্রচারের মাধ্যমে অন্যকেও জানতে সাহায্য করুন।

Say something

Please enter name.
Please enter valid email adress.
Please enter your comment.